10 Amazing facts about United Arab emirates | সৌদি আরবের অবাক করা 10টি দুর্দান্ত ফ্যাক্ট যা আপনার অবশ্যই জানা উচিত

 সৌদি আরবের অবাক করা সব দুর্দান্ত ফ্যাক্ট  যা আপনার অবশ্যই জানা উচিত।


23সে সেপ্টেম্বর সৌদি আরব তাদের জাতীয় দিবস উদযাপন করবে।  সৌদি আরব তাদের সমস্ত  ভবন, রাস্তা এবং গাড়ি সৌদি পতাকা দিয়ে সাজিয়ে তুলবে। সঙ্গে থাকবে ঐতিহ্যবাহী উত্সব, বিভিন্ন  লোককাহিনী,  নৃত্য, গান। সকল  বন্ধুবান্ধব এবং পরিবার এই উপলক্ষে একত্রিত হবে। 

তবে সৌদি আরব সম্পর্কে অনেক কিছুই আছে জানানোর যা হয়তো সকলে জানেন না। এটি একটি বিশেষ উপহার হিসেবে আপনার কাছে আমরা উপস্থাপন করছি। 

 এখানে আমরা সৌদি আরব সম্পর্কে  আশ্চর্যজনক, আকর্ষণীয় ও অবাক করা সব দুর্দান্ত  তথ্যের একটি তালিকা একসাথে করেছে  যা আপনি নিশ্চিতভাবে জানেন না।

শুরু করার আগে সৌদি আরবের "ন্যাশনাল ডে" এর  একটু ইতিহাস বলে নেই ...

সৌদি আরবের জাতীয় দিবস বাদশাহ আব্দুল আজিজ কর্তৃক সৌদি আরবের প্রতিষ্ঠার স্মরণে আয়োজিত হয় ।  দূরদর্শী বাদশা আব্দুল আজিজ কয়েক দশক ধরে চলা বিভিন্ন দলের  যুদ্ধ বন্ধ করেন  এবং প্রতিদ্বন্দ্বীদের একসাথে নিয়ে আসেন।  বাদশাহ আব্দুল আজিজ, আল-সৌদ পরিবারের প্রধান ছিলেন। ও  অবশেষে 23শে সেপ্টেম্বর 1930 তারিখে সৌদি আরব নামে একটি দেশ গঠন করা হয়। এবং তারপর থেকে প্রতি বছর এই দিনটি সৌদি আরবের ন্যাশনাল ডে হিসেবে পালন করা হয়।

এবার তাহলে দেখে নিন সৌদি আরবের দশটি অজানা ও আকর্ষণীয় বাংলা ফ্যাক্ট বা তথ্য যা আপনাকে অবাক করবে ।

তবে শুরু করার আগে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না। আর নতুন পোস্ট বা আর্টিকেল এর ইমেইল নোটিফিকেশন পাওয়ার জন্য আপনি এখানে ক্লিক করতে পারেন। ক্লিক করার পর আপনার নাম ও ইমেইল দিয়ে সাবমিট করে দেবেন

চলুন শুরু করা যাক।

1. সবচেয়ে বড় মাশরুম

350 মিলিয়ন বছর আগে সৌদি আরবে একটি 20 ফুট মাশরুম ছিল। হ্যাঁ ঠিকই পড়েছেন। 20 ফুট মাশরুম ছিল। বিজ্ঞানীদের দাবি যে, এটি সম্ভবত শুষ্ক মরুভূমির  সবচেয়ে বড় জীবিত উদ্ভিদ।

2. উটের বিনিময়

আশ্চর্যজনক মনে হলেও সৌদি আরবের  মরুভূমিতে প্রচুর উট রয়েছে । কিন্তু আপনি কি জানেন যে সৌদি আরবের  রাজধানী রিয়াদে প্রতিদিন 100 টিরও বেশি উট বিক্রি হয়। এবং এক সময় সৌদি আরবে উটের বিনিময় প্রথার কথাও বিভিন্ন বইয়ে উল্লেখ আছে।

বলে রাখি অনেকে মনে করেন দুবাই সৌদি আরবের রাজধানী, কিন্তু আসলে সেটা ঠিক নয়।  সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ এ।

আপনি আরও পড়তে পারেন ঃ প্যারিসের দশটি মজাদার, আকর্ষণীয়, এবং অজানা দুর্দান্ত ফ্যাক্ট।

3. বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিল্ডিং 

 বিশ্বের সব দেশ দাবি করতে চায় যে তাদের কাছে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ভবন আছে,  সেই সম্মান ও রেকর্ড সৌদি আরব সবার কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে ভুর্জ খালিফার মাধ্যমে।  প্রকল্পটির জন্য 1 বিলিয়ন ডলারের বেশি খরচ করা হয়েছে। 

 4. সৌদি আরবের রাজা

 সৌদির রাজার সরকারী উপাধি হল  “Custodian of the Two Holy Mosques.” মানে পবিত্র মসজিদের হেফাজতকারী। জানুয়ারী 2015 থেকে সৌদি আরবের  রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ।

5. বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেলের ভাণ্ডার 

সৌদি আরবের  তেলের মজুদ অনেক বেশি। বিশ্বজুড়ে আমরা সৌদি আরবের তেলের কথা আলোচনা করি। বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেলের ভাণ্ডার সৌদি আরবের কাছেই আছে।

কতটা তেল আছে ? 4,770,897টি অলিম্পিক সুইমিং পুল পূরণ করার জন্য যতটা তেল প্রয়োজন, তার থেকেও বেশি তেল রয়েছে সৌদি আরবের কাছে ।

আপনি আরও পড়তে পারেন ঃ কলকাতার মজাদার ও আকর্ষণীয় ফ্যাক্ট

6. এমন একটি দেশ যেখানে কোনো নদী নেই

সৌদি আরব এমন একটি দেশ যেখানে একটিও নদী নেই। 830,000 বর্গ মাইল আয়তনে বিশ্বের 13তম বৃহত্তম দেশ সৌদি আরব , তবে দেশের 95% মরুভূমি বা আধা-মরুভূমি হিসাবে গণ্য করা হয় এবং দেশের শুধুমাত্র 1.45% জমি চাষযোগ্য।

7. সৌদি একটি তরুন দেশ

সৌদি আরবের জনসংখ্যা অত্যধিক তরুণ।  জনসংখ্যার মাত্র 5% 60 বছরের এর বেশি, যেখানে 47%  জনসংখ্যা  24 বছরের কম।  আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ  বয়স্ক জনসংখ্যার তুলনায় তরুন প্রজন্ম বেশি দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি  জন্য ভাল ইঙ্গিত দেয়।

8. তেল বেচে টাকা

সৌদি আরবের  জিডিপির প্রায় 45% তার পেট্রোলিয়াম বিক্রির মাধ্যমে  আসে, যা প্রায় $300 বিলিয়নেরও বেশি, যা ইরাক, মরক্কো, টোঙ্গা এবং রুয়ান্ডার মতো চারটে দেশের মোট জিডিপির চেয়েও বেশি । কিন্তু  তারপরেও সৌদি আরব নিজের অর্থনীতিতে বৈচিত্র্য আনার জন্য  গুরুত্বপূর্ণ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে।  ৬টি নতুন ‘অর্থনৈতিক শহর’ তৈরি করা হচ্ছে সৌদি আরবে। যেখান থেকে  তারা লক্ষাধিক নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি  করবে এবং জিডিপিতে অতিরিক্ত $150 বিলিয়ন যোগ করবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। যা $150 বিলিয়ন মানে কেনিয়ার মোট জিডিপির 3.5 গুণ।

9. যেকোনো কিছুর জন্য প্রস্তুত

সৌদি আরব তার জিডিপির 10.4% সামরিক খাতে ব্যয় করে। যেখানে আমেরিকার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র  প্রায় 3.5% ব্যয় করে।  নিরাপত্তা, প্রশিক্ষণ এবং যুদ্ধ সরঞ্জাম খাতের এই বিশাল খরচ সৌদি আরবের ক্ষমতার প্রমান করে।দেশের প্রতিটি নাগরিকের সুরক্ষার প্রতি তাদের প্রতিশ্রুতি নিশ্চিত করে। সঙ্গে বিশ্বজুড়ে মিত্রদের সহায়তা করতে সক্ষম প্রথম শ্রেণীর সামরিক বাহিনী রয়েছে সৌদি আরবের কাছে ।

আপনি দেখে নিতে পারেন ভারতের সেরা দশটি ই-কমার্স ওয়েবসাইটের তালিকা

10. নারী নির্যাতন নাকি ক্ষমতায়ন

সৌদি আরবে মহিলাদের উপর প্রথাগত মুসলিম নিষেধাজ্ঞাগুলি প্রায়শই তাদের জীবনের নির্দিষ্ট কিছু ক্ষেত্রে  তাদের সফল হতে বাধা দেয়, তবে বর্তমানে বেশ কিছু কারন লক্ষণীয়,  যে এটি পরিবর্তিত হচ্ছে এবং মনোভাবের বিকাশ ও বিবর্তন ঘটছে। সৌদি আরবের  কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকদের অর্ধেকেরও বেশি সংখ্যক মহিলা পরীক্ষার্থী ছিল 2015 সালে । এখন সৌদি আরবে মহিলারা ভোট দিতে পারেন। যা 2017 সালে প্রথম শুরু করা হয়।  2017 সালের ফেব্রুয়ারিতে সারাহ আল সুহাইমি সৌদি আরবের সভাপতিত্বকারী প্রথম মহিলা হন।

যেকোনো নতুন পোস্ট বা আর্টিকেল এর ইমেইল নোটিফিকেশন পাওয়ার জন্য আপনি এখানে ক্লিক করতে পারেন। ক্লিক করার পর আপনার নাম ও ইমেইল দিয়ে সাবমিট করে দেবেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ